নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 4 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • কাজী হাসান
    • নিঃশ্বাসে বিশ্বাসে
    • নুর নবী দুলাল
    • সুব্রত শুভ

    নতুন যাত্রী

    • গণতন্ত্র মুক্তিপাক
    • তাহমিদ
    • সৈয়দ আহাম্মদ উপল
    • আদিত্য বোস
    • মুহম্মদ যিশু ঠাকুর
    • মিন্টু২২৫৬
    • নাসির খান
    • শত্রুঘ্ন মিত্র
    • রুদ্রপল্লব
    • শুভ্রজিত দাস

    “বাগদাদ জ্বলছে” - নামহীন নারীর ব্লগ থেকে ! – কিস্তি ৫


    (পূর্ব প্রকাশিতের পরে থেকে)

    আমার কলিগ “ওয়াই” চাকুরী ছেড়ে দিচ্ছে। বিদেশে চলে যাবে কাজের সন্ধানে। এখানে আর কিছুই করার নেই তার। আমি আমার পরিকল্পনার কথা বললাম, বাড়ীতে কাজ নিয়ে গিয়ে করবো, এমন টা। খুব বিষন্ন ভাবে মাথা নাড়ালো “ওয়াই” কিন্তু কিছু বললো না।

    জিয়াউর রহমান যে রাজাকার ছিল একটি ঘটনায় আজ তা জাতির সামনে স্পষ্ট


    জিয়াউর রহমান যে রাজাকার ছিল একটি ঘটনায় আজ তা জাতির সামনে স্পষ্ট
    সাইয়িদ রফিকুল হক

    সনাতনি কৃষ্ণ ভাবনার সাধারন তত্ত্ব কথা পর্ব ১



    সবার আগে সবাই এক সঙ্গে বলুন ,
    হরিচাদ,গুরুচাদ রাধে কৃষ্ণ পরমানন্দে হরি হরি বল ও হে ...............
    হরি বল হরি বল / হারে কৃষ্ণা ।।

    ত্রয়ী


    সকাল সবসময় স্নিগ্ধ। বেলকনি দিয়ে সোজা আলো এসে পড়ছে সিনথিয়ার বিছানায়। সিনথিয়া এই সময়টা খুব প্রিয়। প্রিয় না হওয়ারই বা কোনো কারণ আছে কি? সে ভেবে কূল পায় না। আলো এসে সোজা তার মুখের উপর পড়ে। আর এই মিষ্টি আলোর জন্যেই হয়তো লোকে সকালের ঘুম ভাঙানোর অপরাধ মার্জনা করে দেয় সূর্যকে। সিনথিয়া আড়মোড়া ভেঙে উঠে বসলো।অয়ন এখনো ঘুমাচ্ছে। কুম্ভকর্ণ একটা!

    বিজ্ঞান—বিবর্তন—ধর্ম


    বিজ্ঞান ফসিল ( জীবাশ্ম ) আবিষ্কার করে গবেষণা করে দেখিয়ে দিয়েছে যে মানুষও আসলে ক্রম-বিবর্তনের ফল । প্যলিয়োজয়ীক, মোসোজয়ীক, টারসিয়ারী প্রভৃতি হলো পৃথিবীর ভৌগলিক ক্রম-বিকাশের জমান। এ সব জমানায় পৃথিবীতে হরদম ভাঙচুর চলেছে, নানা প্রকার শিলাস্তর গঠিত হয়েছে ; তারি কতকগুলোর নাম হচ্ছে ক্যামব্রিয়ান, অড্রোভিসিয়ান, ডেভোনিয়ান, ট্রায়সিক, জুরেসিক, ক্রেটাসিয়াস প্রভৃতি। এই বিভিন্ন ভৌগলিক জামানায় বিভিন্ন শিলাস্তর বিন্যাস কালে বিভিন্ন ধরণের জীব-জন্তুর আবির্ভাব হয়েছিল । তাদের বৈজ্ঞানিক বিভাগ করা যায় ও চিহ্নিত করা যায় ; অমেরুদণ্ডী, মেরুদণ্ডী, অণ্ডজ, স্তন্যপায়ী প্রভৃতি রূপে । এই সবের মধ্যে অনেক ব

    রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র ও সরকারের শুভবুদ্ধির সংকট


    লোডশেডিং দিয়ে আমাদের হাড়ে হাড়ে বুঝাচ্ছে আমরা কেন রামপালের বিরোধিতা করি।
    তবে আমরা এই উষ্ণায়নের জন্য বিদ্যুৎ ব্যবস্থাকে দায়ী করবো না,কারণ প্রকৃতিতে উষ্ণায়নের অন্যতম কারণ বন উজাড়করণ।
    যদি বনায়ন হয় তবে উষ্ণতা হ্রাসের জন্য রামপালের বিদ্যুৎ প্রয়োজন হবে না।
    প্রয়োজনে পাবলিক সৌরশক্তির ব্যবহার বাড়াবে।
    তবুও রামপাল বিদ্যুৎ গড়ে উঠতে দিবে না।
    উন্নয়ন কার্যক্রমগুলো কেন যে জনসাধারণের বিতর্কের সৃষ্টি করে তা আমার বোধগম্য নয়।

    রিচার্ড ডকিন্সের বাস্তবতার জাদু - প্রথম অধ্যায় (দুই)


    রিচার্ড ডকিন্সের বাস্তবতার জাদু - প্রথম অধ্যায় (দুই)
    বাস্তবতা কি ? জাদু কি ?

    কুরআনে কি ভুল নেই? পর্ব- ৩


    অতঃপর তিনি সন্তানকে নিয়ে তার সম্প্রদায়ের কাছে উপস্থিত হলেন। তারা বললঃ হে মারইয়াম, তুমি একটি অঘটন ঘটিয়ে বসেছ।হে হারূণ-ভাগিনী, তোমার পিতা অসৎ ব্যক্তি ছিলেন না এবং তোমার মাতাও ছিল না ব্যভিচারিনী।-সূরা মরিয়মঃ২৭-২৮।
    উক্ত আয়াতদ্বয়ে স্পষ্ট করে বলা হয়েছে, যিশু মাতা মরিয়ম হারুন (আ) এর বোন।অর্থাৎ মেরি ছিলেন মুসা (আ) ও হারুন (আ) এর বোন।
    এবার দেখি সূরা আত-তাহরীমের ১২ নং আয়াতে কি বলা হয়েছেঃ

    শহরের জীবন


    রাত গুলো শেষ হয় অপেক্ষায়,
    নাগরিক শুধু দেখে-দাঁড়িয়ে থাকা ল্যাম্পপোস্ট গুলো নিভে যাওয়া।আরেকটি সকাল এলে থেমে যায় সকল উৎসবের কথা।
    ব্যার্থ প্রেমিকদের আড্ডা চায়ের দোকানেই থেকে যাবে আরো বুঝি তিন পাঁচ সাত বছর।
    শহরতলীর মধ্যবৃত্তের জীবন পাল্টায়না কখনো,
    উচ্চবৃত্তের হাসি কান্না ঈশ্বর ছাড়া শুনেনা কেউ,
    আমি শহরের পুরনো নাগরিক-
    শহরের বয়স গুনি মানুষের গল্প শুনে।

    জিয়ার আমলের চাকুরী যেন সোনায় সোহাগা


    জিয়াউর রহমান এর শাসন আমলে সেনাবাহিনীতে যোগদান করার সময় কতিপয় কিছু লোক কোন যোগ্যতা না থাকা সত্ত্বেও নিয়োগ পেয়েছিল। তাদের মধ্যে অন্যতম হলেন যুদ্ধা অপরাধী গোলাম আযমের ছেলে আবদুল্লাহ আমান আযমি, জিয়াউর রহমান এর শাসন আমলে ১৯৭৯ সালে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে যোগদান করেন। বাংলাদেশে অনেক মেধাবী তরুন থাকা স্বত্তেও যুদ্ধাপরাধী জামাতের ইসলামের আমীর, গোলাম আযামের ছেলে আবদুল্লাহ হেল আমান আযমি যিনি এসএসসি পরীক্ষায় ৩য় বিভাগে পাস করে ছিলেন। ৩য় বিভাগে পাস করা সত্ত্বে তৎকালীন পাকিস্তানের দোসর রাজাকার বাহিনীর প্রধান গোলাম আযম সন্তান হওয়ার কারণে জিয়াউর রহমান বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মত দেশের গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানে চ

    পৃষ্ঠাসমূহ

    চেতনার দীপ শিখা - নিলয় নীল

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর