প্রাণে প্রাণ মেলাবই.....
ব্লগপ্ল্যাটফরম

karigor.com

karigor.com

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষন

ইস্টিশনের যন্ত্রপাতি

ওয়েটিং রুম

এইমূহুর্তে 3 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

ভোটকেন্দ্র

শৃঙ্খলা ভঙের দায়ে সাকিব'র বিরুদ্ধে ক্রিকেট বোর্ডের নেওয়া সিদ্ধান্তকে কি সমর্থন করেন?:


মহা ইসরায়েলে'র স্বপ্ন ও অনন্ত যুদ্ধের স্বপ্নদোষ


উনবিংশ শতকে জার্মানিতে দুনিয়ার অনেক বড় বড় দার্শনিক, বুদ্ধিজীবীর জন্ম হয়েছে। জার্মানি ছিল সেই সময়কার দুনিয়ায় বুদ্ধিবৃত্তি চর্চার অন্যতম ক্ষেত্র। পাশাপাশি এই সময়ে জার্মানিতে কট্টর, মৌলবাদী ও জাত্যাভিমানি নানা মতাদর্শের উদ্ভব ঘটে। মজার বিষয় হচ্ছে, নাজিবাদ এবং জায়নবাদ এই দুইয়ের জন্মই হয়েছে জার্মানিতে। জায়নবাদের জন্মদাতা হিসাবে পরিচিত থিওডর হার্জলের মতানুসারে ‘গ্রেটার ইসরায়েল’ হলো মিশরের নীল নদ থেকে শুরু করে ফোরাত নদীর তীর পর্যন্ত বিস্তৃত অঞ্চল”। ১৯৪৭ সালের ৯ জুলাই ‘ফিলিস্তিনের ইহুদী এজেন্সি’র প্রতিনিধী রাব্বি ফিশ্চমান জাতিসঙ্ঘেও একিরকম দাবি তুলেছিলেন যে আল্লাহর প্রতিশ্রুত ইহুদীদের দেশ মিশরের নদী থেকে ফোরাত নদী পর্যন্ত পুরো অঞ্চল, যার মধ্যে সিরিয়া এবং লেবাননের জমিও রয়েছে’। বর্তমান দুনিয়ার জায়োনবাদীরাও এইরকমই বিশ্বাস করে এবং তাদের বর্তমান রাজনৈতিক প্রকল্পগুলোও এই বিশ্বাসের চারপাশেই ঘুরপাক খায়।




কতকাল চলবে এমন ????


ঈদের ছুটি শেষ হচ্ছে আজ।বেশতো মানুষ ছুটি কাটিয়ে ক্র্মস্থলে ফিরছে। তবে,কি হবে ওই বাড্ডায় অনশন করা ৫টি কারখানার ১৬০০ শ্রমিকদের??
যারা ঈদের বোনাসতো দূরের কথা শেষ ৩ মাস অবধি বেতন পান না।একজন শ্রমিক কত টাকা বেতন পান??
তারা তাদের সল্প মজুরী দিয়ে যেখানে মাসের অর্ধেক মাস যেতে না যেতেই বকেয়া-ধার করতে হয় সেখানে ৩ মাস।মানুষগুলো কিভাবে বেচে আছে??
হয়তো নয় ঠিক না খেয়েই আছে। তাদের ছেলেমেয়েদের পড়াশোনার কি অবস্থা??
না খেয়ে পড়াশোনা না হলেও আজও তারা ক্রান্ত হয়নি।৪দিনের কঠোর অনশনে আজ তারা শয্যায়।তাদের কারখানার মালিক কোথায়???

বিভাগঃ



কাগুজে সম্রাজ্ঞী


সম্রাজ্ঞীদের জীবন আমরা যেমনটা ভাবি বোধহয় অতটা সুখের হয় না।খুব বিখ্যাত একজন সম্রাজ্ঞীর নাম আঞ্জুমান বেগম বা মমতাজ মহল। সম্রাট শাহজাহানের সাথে মমতাজ মহলের প্রেমের আখ্যাত ভীষণ জনপ্রিয়। মমতাজে মুগ্ধ শাহজাহান, তার প্রেমের স্মৃতি হিসেবে করে গড়ে তোলেন তাজ মহল। স্ত্রীর স্মৃতিতে তাজ মহল তৈরি করে, শাহজাহান অনেকের কাছের স্বরণীয়, এবং এক বরেণ্য প্রেমিক।

শাহজাহান-মমতাজের প্রেম নিয়ে কবিরা অনেক কবিতাও লিখেছেন।তবে মমতাজ মহলই শাহজাহানের একমাত্র স্ত্রী ছিল না, মমতাজ ছিল শাহজাহানের তৃতীয় স্ত্রী।তার প্রথম স্ত্রী কান্দাহারি বেগম,দ্বিতীয় স্ত্রী আকবারাবাদি মহল।




বিভ্রান্ত


শুভ্র আঙ্গুল,রক্তে সৌরভ - পোড়ে,
পোড়ে মস্তক, গভীর বোধ
একবার,দুবার,তিনবার,আবার
ভোরে সূর্যের অপঘাত,
ভোরে নেমেছে কীটপতঙ্গের রাত।
কেড়ে নেয়,
কেড়ে নেয় - আমার অহংবোধ,
আমার অবিনাশ, ঈশ্বরে যায় আমার অমর শ্বাস।
স্মৃতি জানে,
মানুষ নই দেবতা ছিলাম
পাখা উল্টানো ফেরেশতা
জিভ চাটলেই শান্তিতে পাই,
বিশুদ্ধ রক্তের স্বাদ।
ক্ষমা করিনি,দেইনি শুভাশিস
গন্দম বৃক্ষ লকলকে বেড়ে ওঠে
তবু বেড়ে ওঠে কাধে,পিঠে
ঈশ্বর,অপরাধে অপরাধে
চামড়া খসে খসে পড়ে,
গন্দমের স্বাদে,
নূরের আলোতে পোড়ে, হাতের সিগারেট।
শুরুতেই বিস্মৃতি,শেষে দাগহীন যাত্রী
বিভ্রান্ত আমি, চরম বিভ্রান্ত আমি,
মহাকালে তাকিয়ে দেখি




আগামীদিনের বুদ্ধিজীবী: যতটা এগিয়েছি তারচেয়ে পিছানোর আয়োজন?


এই দেশে কখনোই কেবলমাত্র “বাঙালী” চেতনার আন্দোলন হয়নি। আগেপিছে “মুসলিম” থাকতে হয়েছেই। এমনকি সাহিত্যের মত শিল্পচর্চায়ও এভাবে এখানে উল্লেখ করা হয়- “বাঙালী মুসলমান সাহিত্যিক”! কখনো কি শরৎচন্দ্রকে বলা হয়েছে “বাঙালী হিন্দু সাহিত্যিক”? যাই হোক, পাকিস্তান সৃষ্টির পর এখানে “বাঙালী মুসলমান”- এই চেতনাটুকুই প্রতিষ্ঠা করতে রবীন্দ্র জন্মশতবার্ষিকী, লালন, জীবনানন্দকে আকড়ে ধরা হয়েছিল। “মুসলিম জাতীয়তাবাদীদের” সঙ্গে লড়েছিল এই “বাঙালী মুসলমানরাই”।




বোকা ছেলেটির গল্প


তোমাদের নিশ্চই সেই বোকা ছেলেটার কথা মনে আছে, ওই যে শুকনো চেহারার ছেলেটা। সাধারণত বোকা মানুষরা মোটা হয়, দেহের আকৃতি বাড়ার সাথে বুদ্ধির পরিমাণ কমতে থাকে। এই ছেলেটি তার ব্যতিক্রম ছিল। আমরা তাকে ' ডায়েট হাবু ' বলেই ডাকতাম। তোমরা লক্ষ্য করে থাকবে, হাবু নামটা কেমন যেন মোটা মোটা লাগে। আমাদের পরিচিত বিশাল ভুড়িওয়ালা লোকের নাম ছিল হাবু। তাই আমাদের হাবুর নামের আগে ডায়েট শব্দটা লাগিয়ে নিয়েছিলাম। এবার নিশ্চই হাবুকে মনে করতে পারছ। ওহ কি বলছ, মনে পড়েনি? তাহলে সেই ডায়েট হাবুর গল্পটা খুলেই বলি।

বিভাগঃ



আই ডোন্ট কেয়ার | আড়াই ঘন্টার অত্যাচার | মুভি রিভিউ


[স্পয়লার এলার্ট]

মুক্তির আগে থেকেই ববির অর্ধনগ্ন একটা পোস্টারের জন্য "আই ডোন্ট কেয়ার" সিনেমাটি আলোচনায় ছিল। ববির দাবী পরিচালক ফটোশপ করে এই পোস্টার বানিয়েছেন। সিনেমায় অবশ্য পোস্টারের দৃশ্যটি পাওয়া যায়নি। হলে গিয়েও পোস্টার দেখে কিছুটা দ্বিধাদ্বন্দ নিয়ে ঢুকে গেলাম সিনেমা দেখতে। ভীড়ের ভিতর অনেক কষ্টে একটা টিকিট জোগাড় করলাম। এই প্রথম দেখলাম শুধু পরিচালক এবং সিনেমার নাম দিয়ে সিনেমা শুরু হল। অন্য কোনো কলাকুশলীর নাম নেই। সিনেমার মূখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছে বাপ্পী, ববি, নিপুন, নূতন, প্রবীর মিত্র, মিশা সওদাগর।




সার্ভাইভ জানুন: গোঁড়ার কথা


জঙ্গলে-পাহাড়ে ঘুরে বেড়ানো, ক্যাম্প করা, ক্যাম্প-ফায়ারের চারিদিকে বন্ধু বান্ধবদের নিয়ে চুটিয়ে আড্ডা দেয়া ইত্যাদির মধ্যে একটা রোমাঞ্চ কাজ করে। আমরা প্রায় সব বয়সের মানুষ-ই কম বেশি রোমাঞ্চ পছন্দ করি আর তার কারনেই কর্মবেস্তময় সময়ের ফাঁক-ফোঁকরে যদি সামান্যও সময় পাই তাহলে আমরা কোন না কোন রোমাঞ্চের সন্ধানে বেরিয়ে পড়তে পিছ পা হই না। ছোট বেলা থেকেই জঙ্গল, পাহাড়, ক্যাম্পিং ইত্যাদির প্রতি আমি আকৃষ্ট ছিলাম। বড় হওয়ার পর যেটা প্রায় নেশায় পরিনত হয়েছে। যাইহোক, ক্যাম্পিং এর পেছনে থাকা আমার দূর্বার আকর্ষনের কারনেই একবার আমার একটা বইয়ের প্রয়োজন পরে ক্যাম্পিং সংক্রান্ত কিছু বিষয় জানার জন্য। কিন্তু অনেক লাইব্রেরী




ডায়েরিঃ বৃদ্ধাশ্রম ও অতঃপর


আমার বেতন ২২০০০ টাকা, কিন্তু আমি যে বাসায় থাকি ওটা বাড়িধারাতে( ওল্ড ডি ও এস এইচ) ।এয়ারপোর্ট এর পূর্ব দিকে একটা বিশাল ফ্লাট। লোকে শুনে হাসে, পিছে লোক ঘুসখোর বলে।
আমি হাসি, গ্রাম থেকে এসেছিলাম একটা কাজ জুটাবো বলে। কিন্তু আমাকে খুঁজে নিয়েছে। বিশাল কোম্পানি। বছর খানেক পর আমার কাজের উপর খুশি হয়ে এই বাড়িধারাতে ট্রান্সফার করে দেয়। সাথে এই অফিসিয়াল ফ্লাট। পুরো ঘটনা অনেক কে বলা হয়, যারা শুনে তাড়া ভ্রু কুঁচকায়। বাকিরা ঘুস খোর বলে।
যেদিন এই বাসায় এসেছিলাম সেদিন শায়লা কে কোলে তুলে ঘুড়িয়েছিলাম, চুমু খেয়েছিলাম, মাঝরাতে দুজনে একসাথে নেচেছি খিক খিক।
--------

বিভাগঃ



সস্তাই হবো আমি


খুব অল্প কিছুতে আনন্দিত হওয়াকে আমি খুব দোষের কিছু মনে করি না। ঠিক আছে অনেকেই এটাকে মনে করতে পারে যে খুব অল্পতে তুমি খুশি হয়েছ তাই তুমি খুব সস্তা মানসিকতার। তাতেও আমার কিছু যায় আসে না। আমি খুব অল্পতে খুশি হই, খুব অল্পতে রাগ করি। আমি আমার প্রিয় মানুষটার মুখের হাসি দেখার জন্য শত সহস্র কাজের থেকেও সময় বের করতে পারি, অনেক রেগে গেলেও শুধু অদ্ভুত কিছু হাসির জন্য, অপলক চোখে চেয়ে থেকে নির্বাক বসে থাকার মাঝেও না বলা কথাগুলোকে চোখের তারায় খেলা করতে দেখে আমি খুশি হতে পারি। আমি খুশি খুঁজে নিতে পারি অন্ধকারে বসে থেকে কোথাও থেকে ভেসে আসা গানের সুরের সাথে লাল-নীল বাতি জ্বলা খেলনা বিক্রিরত বাচাগুলোকে নিজেদেরই




তোমাকেই


তোমাকেই
-স্মরন বড়ুয়া নেই
তোমাকে দেখতে খুব ইচ্ছে করছে !
এই রাত উপযুক্ত কিনা বলতে পারি না?
তবুও তুমি কি বাতায়নে উড়ে এসে,
খুব পাশে বসে,
তোমার শীতল হাতে,
আমায় ছুঁয়ে দেবে,
তোমার ওষ্ঠ দিয়ে,
আমার ওষ্ঠ ছোবে,
তোমার বুকের উষ্ণতায়,

বিভাগঃ



মানবতা !!


২০০৩ সালের বিশ্বকাপে জিম্বাবের এন্ডি ফ্লাওয়ার আর হেনরী ওলেঙ্গা মিলে তাদের প্রেসিডেণ্ট রবার্ট মুগাবের কিছু পলিটিক্যাল ইস্যু, ফর্ম্যালি " ডেথ অব ডেমোক্রেসী " ; অবৈধভাবে শ্বেতাঙ্গদের ভুমি অধিগ্রহন এবং বর্ণবাদী আচরণ ইত্যাদির প্রতিবাদে কালো আর্ম ব্যান্ড পরে নামিবিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচ খেলতে নেমেছিলেন । তাদের কম্বিনেশন টাও জটিল - একজন শ্বেতাঙ্গ আরেক জন কৃষ্ণাঙ্গ !




অপারেশন রেড লাইট ( দ্বিতীয় ও শেষ পর্ব )


ছয়ঃ

অনেকক্ষণ ধরে আমি আর ইয়াসির বসে আছে অন্ধকারে ঘাপটি মেরে । রাত প্রায় দেড়টা বাজে । এইখানে এসে তেমন সন্দেহজনক কিছুই করেনি জালাল । আগ্রহ হারাচ্ছি আমরা । বের হব ভাবছি এমন সময়েই একজন লোক এসে ঢুকলো ক্লাবের মধ্যে । লাল আলোতে অস্পষ্ট হলেও চিনতে আমাদের কারোরই ভুল হলো না লোকটাকে । আব্দুল মজিদ যার আসল নাম মোহাম্মদ ইউনূস । এই লোক এইখানে কি করে !! শক্ত হয়ে বসলাম আমরা ।

বিভাগঃ



জিয়াউল ইসলাম মাসুদ ও বর্তমান বাংলাদেশ ক্রিকেট


জিয়াউল ইসলাম মাসুদ বা মার্শাল মাসুদ মারা গেলেন।পাবনা শহরে এলাম।আমি প্রায় ৩ বছর পর এই শহরে ফিরে আসলাম।আমার বাবা-চাচারা সবাই এখানেই বড় হয়েছেন।
আমার বাবা বর্তমানে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক,চাচা আমেরিকা তে একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক।কিন্তু পাবনাতে এখনো আব্বা এবং চাচার পরিচয়
পাবনা শহরের ভদ্র-নম্র ছেলে যারা কিনা খেলাধুলাতেও সমান পারদর্শী।




আপনিও সাংবাদিক


সাংবাদিকতার প্রকৃত সংজ্ঞা আমার জানা নেই। তবে 'নিও জার্নালিজমের' সংজ্ঞা আমি জেনেছি অনেক পরে। এই নিও জার্নালিজম শুরু হয়েছিল আমেরিকাতেই ১৯৬৭ সালে। ভিয়েতনাম যুদ্ধের সময়, আমেরিকাবাসী যখন সত্যিকার খবর থেকে বঞ্চিত হচ্ছিল তখনই শুরু হয় নিও জার্নালিজম। এটি ছিল মূল ধারার মিডিয়ার বিরুদ্ধে এক প্রকার বিদ্রোহ।


হাতড়ান

পোষ্টার

ফেসবুকে ইস্টিশন

প্রজন্মের বায়োস্কোপ

বাংলা চলচ্চিত্র- নৃ

  • বড় করে দেখুন
  • কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৩ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর