নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    There is currently 1 user online.

    • স্বপন শর্মা

    নতুন যাত্রী

    • আনোয়ার হোসেন
    • দিন মজুর
    • নীলাঞ্জনা
    • কৃশানু কিরিন
    • মোস্তাফিজ আর রহমান
    • নূর চৌধুরী
    • সাইয়েদ তন্ময়
    • সাইফুদ্দিন সোহেল
    • কালের অপমৃত্যু।
    • হিমাদ্রি নীল

    আমার ঘর নেই


    হয়তো এদেশে একমাত্র আমি
    আজন্ম ভুমিহীন,
    জন্মের পর পাইনি আতুর ঘর
    পেয়েছি ডাস্টবিন।
    .
    ঘরের জন্য আবেদন করে
    বরাদ্দ পেলাম ফুটপাত,
    সারা দিন অনাহারে থাকি
    ওখানে কাটে সারা রাত।
    .
    রাতের আধারে হয় পরিচয়
    মুখ চেনে মুশকিল,
    দিনের বেলা ওরা দাবি করে
    অরা নাকি সুশীল।
    .
    সুখে আছি বলতে পারেন
    হয়না কিছু বরবাদ,
    মাঝে মধ্যে বেড়ে চলে
    নরপশুর উৎপাত।
    .
    কারো দ্বারে একমুঠো ভাতের
    জন্য বাড়াই যদি হাত,
    কুকুরের মতো তাড়িয়ে যে দেয়
    গালি তুলে জাত- পাত।
    .

    সাবধান! হোয়াটসঅ্যাপ থেকে চুরি হতে পারে তথ্য ও ছবি


    ‘হোয়াটসঅ্যাপ গোল্ড’ নামে নতুন এক অ্যাপ ছাড়া
    হয়েছে, যেটি আসলে স্প্যাম। ছবি : দি
    ইনডিপেনডেন্ট যখনই কোনো অ্যাপ জনপ্রিয় হয়ে ওঠে,
    তখনই সেটাকে হ্যাক করার চেষ্টা চালায়
    হ্যাকাররা। আর এমনভাবে অ্যাপগুলো হ্যাক করা হয়,
    ব্যবহারকারীরা যেন স্বেচ্ছায় হ্যাকারদের পাতা
    ফাঁদে পা দিয়ে ফেলেন।
    এবার তেমনই এক ফাঁদ পাতা হয়েছে হোয়াটসঅ্যাপে।
    ব্রিটিশ দৈনিক দি ইনডিপেনডেন্ট জানিয়েছে এ
    খবর।
    ‘হোয়াটসঅ্যাপ গোল্ড’ নামে নতুন এক অ্যাপ ছাড়া
    হয়েছে, যেটি আসলে স্প্যাম। এর মাধ্যমে
    ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য, ছবি ও ভিডিও চুরি

    নিজে জাগুন, দেশ জাগবে


    বাংগালী হিসাবে আমরা কিন্তু অনেক কিউট একটা
    জাতী, বিশেষ করে আমাদের কাজকর্ম গুলো
    কিন্তু বেশ উপভোগ্য।
    একদিন দেখলাম এক লোক কলা খেয়ে
    কোনদিকে না তাকিয়ে কলার ছিলকাটা রাস্তাতেই
    ফেলে দিলো।
    তার পেছনের লোকটা উপরের দিকে তাকিয়ে
    ফোনে কথা বলতে বলতে হাটছিলো।
    হাটতে হাটতেই লোকটার পা গিয়ে পড়লো
    ছিলকার উপর।
    কি আর করা!! লোকটা ততক্ষনেই চিৎপটাং।
    লোকটা কিন্তু তখনো কান থেকে ফোন
    সরাইনি।
    ফোন কানে থাকা অবস্থাতেই ছিলকা দাতাকে
    অকথ্য ভাষায় কিছু গালি দিলেন,
    এরপর উঠে দাড়ালেন, এরপর হাটতে শুরু করলেন।

    স্বপ্ন ভাঙ্গার আক্ষেপ


    বিমূর্ত রাতে কল্পনার স্কেচে
    নিয়ন আলোয় দেখা তোমার প্রতিরূপ
    কবিতা তুমি অর্ধাঙ্গিনী আমার
    শরীর থমকে দাঁড়ায়
    ধ্বনিত উপশিরায় বাজে সঙ্গমের মাদুল
    কেয়াফুল হাসে লজ্জাবতী লাজে
    প্রহরী রাতের প্রতিটি তারা প্রতিটি ক্ষণ
    আধো ঘুম টুটে শরত প্রহরে
    দেখি এ যেন এক আশ্চর্য কবিতা
    সূর্য কিরণের দেমাগি অহংকারে পশ্চিম দিগন্ত হাসে
    কল্পনার রঙ ফিকে হয়ে আসে বাস্তবতা
    এ কবিতা নয় প্রতিবিম্ব রাতের দর্পণ
    কবিতারা সবুজ পাহাড়ে মেঘ হয়ে ভাসে
    হিমালয় হয়ে দক্ষিণের বসন্ত ডাকে
    ঋতুরাজ সাজে নব সাজে
    এলো চুল তার আকাশে উড়ে

    শপথের দুইভাগ



    বিপর্ণ সূর্য , নষ্ট হলুদ , নির্জন ফুটপাত ।
    মাঝে মাঝে বিশ্বস্ত মৃত্যু মেঘ হয়ে যায় ।
    যা ছিল , তাই আছে শহর , গ্রাম
    উচ্ছল ক্লান্ত নির্জন স্বপ্ন , ডিমলাইট জ্যোস্না
    আমাদের টুকিটাকি চাওয়া-পাওয়া ।

    স্ত্রীকে প্রহার করার মধ্যেই আছে নারীকে বিপুল সম্মান প্রদর্শন- কিন্তু কাফিররা বলে ভিন্ন কথা


    তথাকথিত ইসলামী পন্ডিতরা দাবী করে , ইসলামই একমাত্র ধর্ম যা নারীকে দিয়েছে বিপুল সম্মান। তারা একটা হাদিস বের করে তাদের দাবীর পক্ষে প্রমান দেখায় , সেটা হলো - মায়ের পায়ের নীচে সন্তানের বেহেস্ত। তো সেই মা একজন স্ত্রীও , আর তার স্বামী তাকে কিভাবে সম্মান দেখাবে , সেটা বলা আছে কোরানে হাদিসে। এবার সেটা দেখা যাক----

    আলো জালিয়ে দিতে চাই


    খুব সম্ভবত তখন ৪র্থ শ্রেনীতে পড়ি। পড়াশুনায় অনেক ফাকিবাজ হয়ে গেছিলাম।
    সারাদিন বাইরেই কাটাতাম। স্কুল থেকে বাসাই ফেরার পরেই দুপুরের খাবার খেয়ে ঐ যে,বাসা থেকে বের হতাম আর ফিরতাম আব্বু অফীস থেকে ফেরার আগে। আম্মুতো মারতোনা তাই আম্মুকে ভয় পাইতামনা।
    তবে আব্বু আমার জন্য জমের মতন ছিলো। আব্বু যতক্ষন বাসায় ততক্ষন আমার মত লক্ষী ছেলে আর একটা খুজে পাওয়া দুষ্কর ছিলো।
    অবশ্য আব্বুকে ভয় পেলেও ছোটবেলা থেকে আব্বু ভক্তই ছিলাম।
    আম্মু মারতোনা তবে আব্বুকে নালিশ করে দিতো, এই জন্য প্রাই আম্মুর সাথেই ঝগড়া করতাম।

    প্রেমপত্র-৬৬


    মেঘপরী,
    তুমি কি জানো তোমার নিশ্চুপতা আমাকে নিঃশেষ করে দিচ্ছে;
    সবুজ গোলগাল শিশির ভেতর লুকিয়ে রাখা নীল নীল বেদনা,
    একশো ফিট ওপরে ইউক্যালিপটাসের সবুজ পাতার খোলকে লুকানো কাহারুষী বিষের মন্ত্রণা,আমার অপরাধবোধ মৃতপ্রায় অবস্থায় ম্যাসাচুসেটসের তীরে পড়েছিল অবসন্ন হয়ে ।হয়ত আমার অজান্তেই রক্তের বিন্দুগুলোর পতন হচ্ছিল, ধীরে ধীরে লুটিয়ে পড়েছিল ভূতলে;

    কত বড় বেয়াদপ হলে ছাত্রলীগ নেতা হওয়া যায়...


    কি আজব দেশ! রাজশাহী বিভাগের নামকরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রী হোস্টেলে ঠুকে ছাত্রলীগ নেতারা ছাত্রীদের অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করল অথচ দারিত্বরত হোস্টেল তত্বাবধায়ক আর পুলিশ প্রশাসন কোন ব্যবস্থা ছাড়াই তাদের হোস্টেল থেকে শুধু বের করে দিল! তাহলে কি হোস্টেল তত্বাবধায়ক আর পুলিশ প্রশাসনের প্রত্যক্ষ ইন্ধনে ছাত্রলীগ নেতাদ্বয় ছাত্রী হোস্টেলে ঠুকে ছাত্রলীগ নেতারা ছাত্রীদের অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করেছে। যে তত্বাবধায়কের ছাত্রীদের ন্যুনতম নিরাপত্তা দেবার ক্ষমতা নেই, তিনি কিভাবে এখনো তত্বাবধায়কের দায়িত্ব পালন করছে। আর পুলিশ তারাত আর ধর্তব্যের মধ্যেই পড়ে না।

    পৃষ্ঠাসমূহ

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর