নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 0 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

নতুন যাত্রী

  • সুশান্ত কুমার
  • আলমামুন শাওন
  • সমুদ্র শাঁচি
  • অরুপ কুমার দেবনাথ
  • তাপস ভৌমিক
  • ইউসুফ শেখ
  • আনোয়ার আলী
  • সৌগত চর্বাক
  • সৌগত চার্বাক
  • মোঃ আব্দুল বারিক

আপনি এখানে

নবীকন্যা বিবি ফাতিমা সম্পর্কে একটি "মৌলিক" জিজ্ঞাসা !


ছোটবেলা থেকে এ পর্যন্ত যত ইসলামের ইতিহাস পাঠ করেছি, তার প্রায় সবগুলোতেই জেনেছি যে, ইসলামের নবী মুহম্মদের (স.) মেয়ে ছিল ৪-জন। যথা রুকাইয়াহ, উম্মে কুলসুম, জয়নব ও ফাতিমা। কিন্তু অন্য ৩-মেয়ের কথা কেবল 'নাম' বলেই শেষ করা হলেও, নবীর জীবনী, হাদিস গ্রন্থের সর্বত্র "কেবল ফাতিমা"কেই যেন নবীকন্যা হিসেবে মর্যাদাবান চিহ্নিত করা হয়েছে। এমনকি একটি হাদিসে কন্যা ফাতিমা, জামাই আলী ও তাদের ২-সন্তান হাসান-হোসাইনকে নবী তার বংশধর বলে আখ্যায়িত করেছন (যাকে শিয়ারা এখনো পবিত্র হিসেবে মান্য করে)। তাহলে বাকি ৩-কন্যার প্রতি এ অমর্যাদা কেন? দেখা যাক কতিপয় হাদিস :-
:
নবীকন্যা ফাতিমা পৃথিবী ও পরকালের নারী কুলের নেত্রী এবং নারী-পুরুষ নির্বিশেষে সকলের মধ্যে তিনিই সর্বাগ্রে জান্নাতে প্রবেশ করবেন বলে হাদিসে উল্লেখ আছে। তা ছাড়া নবী বলেছেন, “চারজন নারী বিশ্বের নারীদের সর্দার। ইমরানের কন্যা মারইয়াম [হজরত ঈসার মা], মুযাহিমের কন্যা আসিয়া [ফেরাউনের স্ত্রী], খোওয়ালাদের কন্যা খাদিজা [নবীর স্ত্রী] এবং নিজকন্যা ফাতিমা, যিনি হচ্ছেন আবার "এদের মধ্যে সর্বশ্রেষ্ঠ"।
:
বুখারী এবং মুসলিম শরীফের হাদিসে নবী ফাতিমাকে বলেন, ‘হে ফাতিমা! তুমি সন্তুষ্ট থাক, কেননা তুমি সব মুমিন নারীদের নয় বরং সব নারীর সর্দার। আবার বলেছেন, ’ফাতিমা আমার দেহের অংশ, যারা তাকে রাগান্বিত করবে, তারা আমাকেই রাগান্বিত করেছে'। হজরত ফাতিমার মাধ্যমে রাসূলে পাকের বংশধারা আজো অব্যাহত রয়েছে বলে শিয়াসহ অধিকাংশ সুন্নি মুসলমানরাও বিশ্বাস করেন। বিখ্যাত হাদিসগ্রন্থ ‘সহিহ তিরমিযিতি' বলা হয়েছে, ‘আয়েশাকে জিজ্ঞেস করা হল, লোকদের মধ্যে কে আল্লাহর রাসূলের সবচেয়ে প্রিয়? তিনি বলেন, "ফাতিমা"। জিজ্ঞেস করা হল, পুরুষদের মধ্যে? তিনি বললেন, তার স্বামী 'আলী'। এমন আরো বহু হাদিস ও ঘটনা বিদ্যমান যাতে বোঝা যায়, অন্য কন্যা বা নাতিদের থেকে নবীর কাছে কন্যা ফাতেমা ও তাঁর ২-সন্তান 'হাসান' 'হোসাইন' খুবই প্রিয় তথা নিজ 'বংশধর' ছিলেন। তবে কি নবীর বাকি ৩-কন্যা অর্থাৎ রুকাইয়াহ, উম্মে কুলসুম, জয়নব নবীর প্রকৃত কন্যা ছিলেন না?
:
ইসলামের ইতিহাস ঘাটলে দেখা যাবে, ৪০-বছর বয়সে নবীর স্ত্রী বিবি খাদিজা তথা কন্যা ফাতিমার মায়ের সাথে নবীর বিয়ে হওয়ার আগেও বিবি খাদিজার আরো ২-জনের সাথে বিয়ে হয়েছিল। বিবি খাদিজার ১ম স্বামীর নাম "আবু হালা ইবন যারারাহ আত-তামীমী" আর ২য় স্বামীর নাম ছিল "আতিক বিন আবিদ আল-মাখযুমি"। সে হিসেবে ইসলামের নবী ছিলেন বিবি খাদিজার ৩য় স্বামী। বিবি খাদিজার প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই বলছি, অবশ্যই তিনি 'বন্ধ্যা' ছিলেন না। অবশ্যই তার পূর্ব ২ স্বামীর ঘরে সন্তানাদি থাকারই কথা। যার বিস্তারিত বর্ণনা আমরা জানিনা।
:
সুতরাং নবীর ৪-কন্যার মধ্যে কেবল কন্যা হজরত ফাতিমাকে ইসলামের সর্বত্র মর্যাদাবান তথা "জান্নাতি নারীদের সর্দার" ইত্যাদিতে ভুষিত করার কারণে সঙ্গত কারণেই মনে প্রশ্ন জাগতে পারে, তবে কি নবীকন্যা রুকাইয়াহ, উম্মে কুলসুম, জয়নব এ ৩-জন নবীর "ঔরসজাত" কন্যা নন? বিষয়টির কোন সঠিক জবাব কারো জানা থাকলে তা জানানোর অনুরোধ করা হলো। আসলেই ব্যাপারটা অজানা আমার !

Comments

ড. লজিক্যাল বাঙালি এর ছবি
 

!

===============================================================
জানার ইচ্ছে নিজেকে, সমাজ, দেশ, পৃথিবি, মহাবিশ্ব, ধর্ম আর মানুষকে! এর জন্য অনন্তর চেষ্টা!!

 
ড. লজিক্যাল বাঙালি এর ছবি
 

!

===============================================================
জানার ইচ্ছে নিজেকে, সমাজ, দেশ, পৃথিবি, মহাবিশ্ব, ধর্ম আর মানুষকে! এর জন্য অনন্তর চেষ্টা!!

 

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

ড. লজিক্যাল বাঙালি
ড. লজিক্যাল বাঙালি এর ছবি
Offline
Last seen: 12 ঘন্টা 15 min ago
Joined: সোমবার, ডিসেম্বর 30, 2013 - 1:53অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর