নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 5 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • মুফতি মাসুদ
  • নরসুন্দর মানুষ
  • সৈকত সমুদ্র
  • রাজর্ষি ব্যনার্জী
  • সাইয়িদ রফিকুল হক

নতুন যাত্রী

  • আদি মানব
  • নগরবালক
  • মানিকুজ্জামান
  • একরামুল হক
  • আব্দুর রহমান ইমন
  • ইমরান হোসেন মনা
  • আবু উষা
  • জনৈক জুম্ম
  • ফরিদ আলম
  • নিহত নক্ষত্র

আপনি এখানে

বৃটিশদের রেখে যাওয়া কিলাকিলি


(না পড়ে লাইক না দেওয়ার জন্য অনুরোধ। )
গতকালের লক্ষীপুরের ঘটনা নিয়ে ব্যাপক ক্ষুব্ধ রঙ-তামাশা হচ্ছে। রঙ তামাশারই বিষয় এবং ক্ষুব্ধ হওয়া আরও স্বাভাবিক। রঙ এবং ক্ষোভের আড়ালে চাপা পড়ে যাচ্ছে গভীর গহ্বর। এটি কোন বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। ক'দিন আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের TSC তে শিক্ষকরা কিলাকিলি করেছেন ডাটছে। একজন কিলাই আরেক জনের নাক ভেঙ্গে ফেলেছেন।
লক্ষীপুরে সন্তানের স্কুলের গেটে আগে ঢুকা নিয়ে কুস্তির প্রধান কারণ "অহম"। আমিত্ব। নিজের শ্রেষ্ঠত্ব।
অহম অন্ধত্ব থেকে ক্ষমতার দন্ধে এরা বালক হয়ে গেছে। বিশ-পচিঁশ বছর আগেও পাড়ায় পাড়ায় তরুনদের মারামারির একটা কারণ ছিল "সিনিয়র-জুনিয়র/তুমি-আপনি"। এখনকার তরূণদের খেয়ে দেয়ে অনেক কাজ আছে "তুমি আপনির কিলাকিলি" এখন অতীতকাল। এখন সম্ভবত সরকারি/আধা সরকাকি কর্মচারী -কর্মকর্তাদের কাজ কাম, বিনোদনের অভাব। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক পাচটা অন্যায় করেছেন।
1) যে কিলাকিলিতে তিনিই একজন ক্যান্ডিডেট সে কিলাকিলিতে তিনি মাইর খেয়ে ভর্তা হয়ে আন্ডা পেয়ে ক্ষমতার অপব্যবহার করেছেন।
2) কিলাকিলি খেলায় হেরে গিয়ে এমন তৃতীয় শ্রেণীর প্রতিশোধ শুধূ আমেরিকা আর পাকিদের দ্বারা সম্ভব। এটা খেলার ইতিহাসে বিরল ও অনৈতিক ঘটনা।
3) সিভিল সার্জন সাব রোগী বোঝেন কিন্তু জেলা প্রশাসক সাবেরতো আইন নিয়ে কিছুটা কাজ কাম করতেই হয়। এই রেসলিংয়ের সময় কোন রেফারি ছিল না।
4) স্কুলে কোমলমতি শিশুদের সামনে এমন খেলা দন্ডনীয় , অনৈতিক, ভবিষ্যতের জন্য ভয়ঙ্কর। অথচ প্রতিযোগীতা হয়েছেই স্কুলের সামনে। জেলা প্রশাসক সাবদের কাজের একটা অংশও এসব দেখ ভাল করা।
5) এসব কুস্তিতে প্রতিযোগীদের ওজন একটা বিষয় । কিন্তু ছবি দেখে বোঝা গেছে ওজনে সিভিল সার্জন সাব অনেক বেশি। এক্ষেত্রে ভুক্তভোগী যদিও প্রশাশক সাব তথাপি দায় তারই।

এবারে সম্ভ্যাব্য ভয়ঙ্কর ব্যাপার - পরাজিত রেসলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সাবের ক্ষমতার অপব্যবহারে/পেশার শপথ ভঙ্গের উদাহরণ নিয়ে যদি সিভিল সার্জন সাবও শপথ ভঙ্গকারী হয়ে উঠতে পারেন । ধরেন কারো প্রতি অ,জে,প্র সাবের মতো প্রতিশোধ নিতে চাইলে তিনি কি করবেন? ঐ ব্যাক্তি বা ধরেন প্রশাসক সাবরে তার টেবিলে জ্বর, পাতলা পাইখানা, মাথা ঘুরানি ইত্যাদির কোন একটার জীবানু ঢুকিয়ে দিতে পারেন বিভিন্ন মেয়াদী।

দৃশ্য হাস্যকর হলেও সমস্যা গভীরে। সরকারি / আধা সরকারি চাকুরেরা জনগণের সেবক কাগজে কাগজেই। বৃটিশ শিক্ষা তা ছিল না। তারা শোষক ছিল । বৃটিশ দর্শন আজও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে মগজে ঢুকানো হচ্ছে।

Comments

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

জহিরুল হক বাপি
জহিরুল হক বাপি এর ছবি
Offline
Last seen: 5 দিন 7 ঘন্টা ago
Joined: রবিবার, জুন 22, 2014 - 10:59অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর