নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 5 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • মুফতি মাসুদ
  • নরসুন্দর মানুষ
  • সৈকত সমুদ্র
  • রাজর্ষি ব্যনার্জী
  • সাইয়িদ রফিকুল হক

নতুন যাত্রী

  • আদি মানব
  • নগরবালক
  • মানিকুজ্জামান
  • একরামুল হক
  • আব্দুর রহমান ইমন
  • ইমরান হোসেন মনা
  • আবু উষা
  • জনৈক জুম্ম
  • ফরিদ আলম
  • নিহত নক্ষত্র

আপনি এখানে

হিন্দু দমন কমিশনের সক্রিয়তা ও আরেক পরাধীন বাংলার প্রতিচ্ছবি !!


বেশ কিছুদিন আগের কথা | আমার ফেসবুক একাউন্টের নিউজফিডে একটি স্ক্রিনশট পেয়েছিলাম যেখানে একটি পেইজ থেকে প্রকাশ্যে হিন্দু দমনের জন্য উস্কানিমূলক কথা লিখা ছিলো | তখন ব্যাপারটা খুব একটা সিরিয়াসলি নেই নি | কারণ ফেসবুকে এমন অনেক পেইজ অনেক স্টেটাসই প্রতিদিন শেয়ার হয় যেগুলো পুরোদমেই ভিত্তিহীন | কিন্তু কয়েকদিন যাবত এমন কিছু তথ্য পাচ্ছি যাতে ওই স্ক্রিনশটটা সত্য বলে মনে হচ্ছে |

গত ৯ এপ্রিল চাদপুরের হবিগঞ্জ উপজেলার হিন্দুদের নামের লিস্ট তৈরি করে তা কম্পিউটারে ছাপিয়ে ঐসব হিন্দু বাড়িতে রেখে আসা হয় | সেখানে উল্লেখিত ব্যক্তিবর্গকে হত্যা করা হবে বলে হুমকি দেয়া ছিলো | মাস ছয়েক আগে একজন হিন্দু ধর্মালম্বী আমাকে ইনবক্সে জানায় যে তাকে বেশ কয়েকদিন যাবৎ হিন্দু দমন কমিশনের নাম করে হত্যার হুমকি দেয়া হচ্ছে | তাকে এমন হুমকি দেয়া হয়েছে যে দেশ ত্যাগ করতে হবে নয়তো ইসলাম গ্রহণ করতে হবে | নাহলে শিঘ্রই তাকে হত্যা করা হবে | বেচারা একটু ধর্মপ্রাণ হওয়ায় তাই অবশেষে প্রাণ বাচাতে বাংলাদেশ ত্যাগের সিদ্ধান্ত নেয় | তবে হঠাৎ তাকে কেন আক্রমণের হুমকি দেয়া হলো এ ব্যাপারে চুলচেরা বিশ্লেষণের খাতিরে খোজ নিয়ে জানতে পারি সে তার এলাকায় বেশ জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব | হয়তো এজন্যই তাকে টার্গেট করা হয়েছে | আবার মাস দেড়েক আগেও আমার এক শ্রদ্ধেয় বড় ভাইয়ের কাছে একই রকম সমস্যার কথা আবার শুনে বেশ চিন্তিত হয়েছিলাম | শুনেছিলাম তার বাবাকেও নাকি এমন আক্রমণের হুমকি দেয়া হয়েছে | তার বাবা একজন হিন্দু ধর্মাবলম্বী , সৎ এবং সকলের প্রিয় শিক্ষক | পুরো পরিবারসহ তারা ভীষণ রকম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছিলো | বড্ড আফসোস করে বলছিলেন , যে শুধু মাত্র হিন্দু ধর্মালম্বী হওয়ার কারণে আজ স্বাধীন বাংলায় তাদের এমন বর্বরতা ভুগতে হচ্ছে | কথাগুলো বেশ আলোড়ন সৃষ্টি করছিলো মনে | আমার কাছে সাহায্যে চেয়েছিলো বটে তবে তেমন কোন সাহায্য করতে পারিনি | কারণ আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর শরণাপন্ন হলে কতটা লাভ হবে তা আমি নিজ অভিজ্ঞতা থেকে বেশ জানি |
শত হলেও পাপী নিজে বিভিন্ন সময় পুলিশের বিভিন্ন আদর আপ্যায়নের শিকার | যাহোক আজকে এসব সম্পর্কে একটু খোলামেলা আলোচনা করবো |

প্রথমত সবার দেখার সুবিধার্থে ফেসবুকের সেই পেইজ পোষ্টের স্ক্রিনশটটা দিলাম |

এখানে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে যে বাংলাদেশের ৬৪টি জেলায় হিন্দু দমন কমিশন নামের সংগঠন করে সংখ্যালঘু হিন্দু সম্প্রদায়কে ধংসের জন্য বেশ ভালভাবেই প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে | বলা বাহুল্য যে স্ক্রিনশটের "মুখোশ উম্মোচন" নামক পেইজটি বেশ কিছুদিন স্পন্সর্ড করে এডও দেয়া ছিল ফেসবুকে | সুতরাং এটুকু পরিষ্কার যে অলরেডি এই হিন্দু দমন কমিশনের জন্য ভালো রকম বাজেটও ধরা হয়েছে |

এখন কথা হচ্ছে এমন পোষ্টের ভিত্তি কতটা আছে বা আদৌ এদের ডাকে কেউ সাড়া দিবে কী না তা জানতে হলে আমাদের একটু পিছনে ফিরে তাকাতে হবে | চলুন জেনে আসা যাক বাংলাদেশে হিন্দু সম্প্রদায়ের বাস্তবিক অবস্থা এবং তাদের দমনের কিছু তথ্য |

পুলিশ রেকর্ড ও মানবাধিকার সংগঠনগুলোর তথ্যমতে, চলতি বছরের প্রথম তিন মাসে সংখ্যালঘুদের ওপর ৭৩২টি মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটেছে যার মধ্যে শতকরা ৮০ ভাগ ভুক্তভোগীই হিন্দু সম্প্রদায়ের | এসব ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তি, পরিবার ও প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ৯ হাজার ৫৬৬টি | তিন মাসে নিহত হয়েছেন ১০, আহত ৩৬৬, অপহরণের শিকার ১০, জোরপূর্বক ধর্মান্তরের অভিযোগ দুই, ধর্ষণের শিকার হয়েছেন আট, গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন চারজন | শুধু এপ্রিল মাসেই রেকর্ডতুল্য ৫৮টি মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটেছে | ক্ষতিগ্রস্তের সংখ্যা ৭১২, অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে এমন মরদেহ উদ্ধার হয়েছে ছয়টি, আহত হয়েছেন ৮৭ জন | এছাড়া অপহরণ , নিখোঁজ ছাড়াও বেশ কয়েকটি পরিবারকে ধর্মান্তরিত হওয়ার জন্য হুমকির অভিযোগ রয়েছে | মে মাসে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন তিন জন, তার মধ্যে দুজন গণধর্ষণের শিকার | জমিজমা, ঘরবাড়ি, মন্দির ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে হামলা, দখল ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে ২৭টি | এছাড়া ইদানিং প্রতিনিয়ত সংবাদ মাধ্যমগুলোর দিকে লক্ষ্য করলেই দেখা যায় নানা সময় হিন্দু পুরোহিত হত্যার মতো বহু নির্যাতনের ঘটনা |

এখন একটু ভাবুন যেখানে মাত্র কয়েক মাসেই এই হারে হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর বর্বরতা চলে , তবে এমন উষ্কানিমূলক এবং হিন্দু দমন সংগঠনে সাম্প্রদায়িক ধর্মান্ধগোষ্ঠীর এগিয়ে আসাটাই কী স্বাভাবিক নয় ! হ্যা একটু খেয়াল করে আগের স্ক্রিনশটটা দেখুন , যে মাসে ঐ হিন্দু দমন কমিশনের কাজ শুরু হয়েছে , তারপর কয়েক মাসের ব্যবধানেই রেকর্ডতুল্য বর্বরতা দেখা গিয়েছে | এখন নিশ্চই আর সন্দেহ নেই ঐ সংগঠনের সক্রিয়তা সম্পর্কে |

এতভাবে হিন্দু সম্প্রদায়কে ধ্বংস করার ঘোষণার পরও অবাক করা বিষয় হলো আজ অবধি পুলিশ প্রশাসন কারও এদিকে নজর নেই | অথচ কয়েকমাস আগে চট্টগ্রামে একজন ফেসবুকে সব মুসলমানকে হত্যা করার কথা লিখলে তার পরের দিনই তাকে গ্রেফতার করা হয় | সরকারও এদিকে খেয়াল করে না | কারণ ২% হিন্দুর জন্য কী আর ৯০% মুসলমানের সামনে কালার হওয়া যাবে ! সাপোর্ট এন্ড ভোট ফ্যাক্ট বাপু |

এ পর্যন্ত হিন্দুদের উপর যতো বর্বরতা বাংলাদেশে চালানো হয়েছে , তথ্যসূত্রমতে সেগুলোর শতকরা ৯০ ভাগেরই আইনত কোন বিচার হয় নি | ফলে হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর বর্বরতার কমতিও নেই | অথচ শুধু স্বাধীনতা যুদ্ধ কেন বর্তমানেও বাংলাদেশের সংবিধানের প্রথম ভাগে প্রজাতন্ত্রের রাষ্টধর্ম বিষয়ে স্পষ্ট লিখা আছে -

"প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম, তবে হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রীষ্টানসহ অন্যান্য ধর্ম পালনে রাষ্ট্র সমমর্যাদা ও সমঅধিকার নিশ্চিত করিবেন"

এছাড়া ধর্মনিরপেক্ষতা ও ধর্মীয় স্বাধীনতা সম্পর্কে লিখা আছে-
"[ ধর্ম নিরপেক্ষতা নীতি বাস্তবায়নের জন্য 

(ক) সর্ব প্রকার সাম্প্রদায়িকতা,

(খ) রাষ্ট্র কর্তৃক কোন ধর্মকে রাজনৈতিক মর্যাদা দান,

(গ) রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ধর্মীয় অপব্যবহার,

(ঘ) কোন বিশেষ ধর্ম পালনকারী ব্যক্তির প্রতি বৈষম্য বা তাহার উপর নিপীড়ন,

বিলোপ করা হইবে ]"

কিন্তু সংবিধানের এ সকল আইন বাস্তবে কতটা কার্যকর হয় ? চলুন এবার একটি ভিডিও দেখে নেয়া যাক -(ইউটিউব লিংক)

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন
https://m.youtube.com/watch?v=HaKooYjZFdo

ভিডিওর লোকটি আওয়ামীলীগের নব নির্বাচিত বর্তমান চেয়ারম্যান হারুন-অর- রশিদ | ইউনিয়ন- নারায়ণহাট, থানা- ভূজপুর, উপজেলা- ফটিকছড়ি, জেলা- চট্টগ্রাম, বাংলাদেশ | উনি যেভাবেই হোক দুই চারটা হিন্দুকে মুসলমান বানাবার নির্দেশ দিচ্ছেন | অথচ এর বিরুদ্ধে সরকার বা প্রশাসন আইনি কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করে নি | এখন নিশ্চই বোঝা যাচ্ছে সংবিধানের কথা গুলোর ভিত্তি কতটা আছে !

বাংলাদেশের মুসলমান সমাজের মধ্যে একটা মনোভাব বেশ দেখা যায় যে , "মালুরা সব গনিমতের মাল" | যেহেতু বাংলাদেশে অধিকাংশ মানুষ মুসলমান, সুতরাং হিন্দুদের এদেশে থাকার অধিকার নেই | মূর্তিপূজারিদের দূর করলেই যেন দেশে ইসলামের ফসল ফলবে | কিন্তু আফসোস তারা বরাবরই ভুলে যায় যে এদেশের মানুষের উপর হিন্দুরা অত্যাচার চালায় নি , চালিয়েছে পাকিস্তানের মুসলমানরাই | ৭১ এ রাস্তাঘাটে যত্রতত্র মা বোনদের ধর্ষণ ঐ মালুরা করে নি , করেছে পাকিস্তানী মুসলিম সেনা আর এদেশের জামায়াতী টুপি পান্জাবী পড়া মোল্লারা | আজকে ২% হিন্দুদের যারা ধ্বংসের চিন্তা করেন , তারা হয়তো জানেন না যে একদিন এই বাংলাদেশের বহু মুসলমান হিন্দু সম্প্রদায়ের ভারতে আশ্রয় নিয়েছিল | সেদিন কিন্তু তারা বাংলাদেশের মানুষদের উপর বর্বরতা চালায় নি | ভুলে যাবেন না , বাংলাদেশের স্বাধীনতার জন্য ঐ মালুরা সেদিন যতটা সাহায্য করেছিলো , একটি মুসলিম দেশ হওয়া সত্বেও পাকিস্তানীরা কিন্তু তার এক গুণ দয়াও করে নি বাঙালির উপর | ৭১ এ যেসব হিন্দুরা দেশ ছেড়ে পালাতে পারে নি , তাদের কতটা অত্যাচার করেছিলো পাকিস্তানীরা তা অকল্পনীয় | কিন্তু আজ স্বাধীনতার এতগুলো বছর পরও যদি এই স্বাধীন বাংলায় এই সংখ্যালঘু হিন্দু অত্যাচারিত হয় , তবে বলবো ব্যার্থ ৭১ , ব্যর্থ স্বাধীনতা | শুধু অকারণে এতগুলো নিরীহ মানুষের প্রাণ গেছে , দেশ স্বাধীন হয় নি ....

এখন আপনি যদি একজন কাটমোল্লা হন , তো আপনার কাছে মনে হতে পারে আমি কেন হিন্দু সম্প্রদায়ের জন্য বা পক্ষে কথা বলছি !! হ্যা তাদের জন্য বলছি , আমি একগুচ্ছ মানুষের বেচে থাকার অধিকারের জন্য কথা বলছি তা সে হোক ২% হিন্দু কী ৯০% মুসলিম | দৃশ্যমান মুর্তিপুজারী বলুন আর অদৃশ্য আত্নার উপাসক , বেচে থাকার অধিকার প্রতিটি মানুষের আছে | আর শুধু মাত্র ধর্মের জন্য তা আপনি কেড়ে নিতে পারেন না | মনে রাখবেন মানুষের মৌলিক চাহিদার মধ্যে যেমন ধর্মের অস্তিত্ব নেই তেমনি ধর্ম ছাড়া মানুষ বেচেও থাকতে পারে | কিন্তু একটি ধর্ম মানুষ ছাড়া টিকে থাকতে পারে না | জীবনের জন্য ধর্ম হতে পারে কিন্তু ধর্মের জন্য মোটেই জীবন নয় |

আসুন আমরা সবাই এগিয়ে আসি এসব সাম্প্রদায়িক উগ্রপন্থী ব্যক্তিবর্গ এবং সংগঠনগুলোর বিরুদ্ধে | মনে রাখবেন , ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকলে বাঙালি | স্বাধীনতার মূল্য দিতে হলে এটাই এখন বিবেক , মানবতা এবং সময়ের দাবী ...
  

Comments

ইকারাস এর ছবি
 

এসব কি সরকারের চোখে পড়ে না?

 
অপরাধ বিদ্রোহি এর ছবি
 

বাংলাদেশের সাইবার অফিসাররা ঘুমাই
পা গাজা খাই ??????<em></em>

 

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

জীহান রানা
জীহান রানা এর ছবি
Offline
Last seen: 3 weeks 1 দিন ago
Joined: বুধবার, মার্চ 23, 2016 - 7:25অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর