নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 4 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • সাইয়িদ রফিকুল হক
    • বিকাশ দাস বাপ্পী
    • রাজর্ষি ব্যনার্জী
    • মাইকেল অপু মন্ডল

    নতুন যাত্রী

    • ফারজানা কাজী
    • আমি ফ্রিল্যান্স...
    • সোহেল বাপ্পি
    • হাসিন মাহতাব
    • কৃষ্ণ মহাম্মদ
    • মু.আরিফুল ইসলাম
    • রাজাবাবু
    • রক্স রাব্বি
    • আলমগীর আলম
    • সৌহার্দ্য দেওয়ান

    ধারাবাহিক উপন্যাসঃ হুলিয়া


    ১। প্রারম্ভিকা। মাঘের শীতে বাঘও কাঁপে।আর উত্তরবঙ্গের বৃদ্ধ-বৃদ্ধাদের মাঝে মড়ক নামে।বগুড়া,রাজশাহী,রংপুর,পঞ্চগড়ের গ্রামগুলোতে সন্ধ্যার পর বাড়ির বাইরে বেরুনো কঠিন হয়ে পড়ে। ঘন কুয়াশায় কাছের জিনিসও দেখা দায়।সবুজ ঘাস,গাছপালা এমনভাবে শিশিরসিক্ত হয়ে থাকে যেন খানিক আগেই বৃষ্টি হয়েছে।এশার নামাযের পরপরই পুরো গ্রাম নীরব হয়ে যায়।

    শান্তির ধর্মের নামে অশান্তি


    যারা এই সমস্যা সৃষ্টি করলেন, জানি না কোন কারণে, তারা কী মন থেকে ক্ষমাটুকু চাইতে পারবেন জনগনের কাছে?

    শান্তির ধর্মের ধোয়া তুলে এমন অশান্তি সৃষ্টি, আখের গোছানোর ফলে, আর কতদিন?

    তবলীগ হেফাজত: যত পথ তত মত।


    হেফাজতে ইসলাম এবং তবলীগ জামাত আজ ভারত থেকে আগত মৌলবি মাওলানা সা'দ কে কেন্দ্র করে নিজেদের মধ্যে একহাত দেখে নিয়েছে। তবলিগের বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বে বক্তা হিসেবে মাওলানা সাদ কে নিয়ে আসা হয়। উনি মূলত তবলিগের পক্ষে কথা বলে থাকেন।

    নারীর বেলায় আস্তিক নাস্তিকের মনোভাবনা প্রায়ই স্ব-গোত্রীয়৷


    নারী মা, নারী বোন, নারী স্ত্রী, নারী কন্যা এর চেয়ে বড় উদাহারণ লাগে না ভদ্র বা সাধু হতে৷ যখনই ভদ্র হবার প্রয়োজন পরে, তখনই নারী আসে মা হয়ে, বোন হয়ে, স্ত্রী-কন্যা হয়ে৷ নোংরা ঢাকতে নারী, নোংরা করতে নারী, হাসতে নারী, বাঁচতে নারী, ফাঁসাতে নারী, ভাসাতে নারী, অভদ্রতায় নারী, ভদ্রতায় নারী, সাধুতে নারী, যাদুতে নারী! চলছে সব কিছুতেই নারী৷

    হুজুর হিট নারী বয়ানে, সমাজ হিট নারীর প্রয়াণে, নারী হিট পোষাকের শালিনতায়, বাহাদুরি হিট নারী চোষায়, যুক্তি হিট নারী দেখে হলেও খাড়া, মন্দ ভালো সবখানে হিট- নয়তো নারী ছাড়া৷

    ইভাকে হল থেকে বের করে দেয়ার নেপথ্যের ঘটনা


    সর্বোপরি আমাদের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোর পরিস্থিতি খুবই খারাপ। প্রত্যেক হলেই কোন না কোন ভাবে ক্ষমতাসীনদের দখলদারিত্ব রয়েছে। হলের সিটগুলো অনেক সময় তারা ছাত্র ছাত্রীদের অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে তাদের কাছে বিক্রি পর্যন্ত করে। শিক্ষার্থীদের উপর নির্যাতন করার জন্য এখানে থাকে পৃথক টর্চার সেলের মত ব্যবস্থা। যে টর্চার সেলের নির্যাতন সইতে না পেরে বাকৃবিতে ২০১৪ সালে সাদ ইবনে মমতাজ নামের এক শিক্ষার্থীর জীবন পর্যন্ত বলি হয়।

    হলুদ সন্ধ্যা


    যদি সমগ্র আকাশটা হয়ে যেত খন্ড খন্ড তুলো
    আমি জেনারেল হাসপাতালের বেডে শুয়ে বলতাম,
    আমার এখানে ক্ষত, ওখানে ক্ষত।
    তুমি আকাশ দিয়ে ড্রেসিং করে দাও!
    দুটো রাজহাঁস দিঘীর জলে সাঁতার কাটার সময়
    জলের আয়নায় চেহারা দ্যাখে।
    পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর আয়না তোমার চোখ।
    আমি তো রাজহাঁস না তুমি জানতে!
    তারপরও কীভাবে আমাকে ফেলে শরতের মেঘের মত চলে গিয়ে
    হেমন্ত আনালে?

    মানুষ ধর্ম ছাড়েনা, উল্টো ধর্মই মানুষকে ছেড়ে দেয়৷


    আমি জন্মগতই একজন নাস্তিক৷ পারিবারিক ভাবে ধর্ম আমার ছিলো কিন্তু নিরীশ্বরবাদী ছিলাম বুঝ হবার পর থেকে৷

    ধর্ম ছিলো আবার নাস্তিক এ কেমন কথা!? হ্যাঁ ঠিক এ কারণসহ আরো কিছু কারণে প্রচলিত ধর্ম হতে আলাদা হওয়া৷ পারিবারিক আমি বৌদ্ধ পরিবারের সন্তান৷ আগে তর্ক চলত মাঠে ময়দানে বন্ধুর আড্ডায়, পরে আসি অনলাইনে৷ তবে সেটা ছিলো শুধু ঈশ্বর ঘিরে৷

    রাজনীতির ওপিঠ: ইকরামুল শামীম


    ১.
    আমার মাথায় হিরে, মনি-মুক্তা এবং হরেক রকম দামী পাথরের মুকুট। আমি সিংহাসনে বসে আছি। দাসীরা আমার চতুরপাশে। প্রজারা আমায় কর দিতে লাইনে দাঁড়িয়ে আছে। আমি অট্টহাসির ভয়ংকর শব্দে নিজেকে মাতিয়ে তুললাম। হঠাৎ কানে কাছে রিংটোন বেজে উঠতেই আমি প্রায় দেড়যুগ পুরোনো বিছানা চাদরের উপর নিজেকে আবিষ্কার করলাম।

    মানুষের জন্মগত ধর্ম ও...


    প্রত্যেকটা মানুষই জন্মগতভাবে হিংসুটে, হিংস্র, স্বার্থপর । এগুলোই মানুষের আসল ধর্ম । মানবধর্ম । এসবকিছু ভুলিয়ে যদি ভালোবাসা, স্নেহ, মমতা ইত্যাদীর মত মিথ্যে ইত্যাদীকে মানবধর্ম বলে মগজে রোপন করা ভালো হয়ে থাকে, তাহলে সামান্য মানসিক প্রশান্তির জন্য ঈশ্বরে বিশ্বাসী হওয়া খারাপ হবে কেন ?

    প্রকৃতির নিয়মের উল্টোটাই যদি একান্ত চাওয়া হয়ে থাকে, তাহলেতো এক নম্বরেই ঈশ্বর । মানুষের সমগ্র সভ্যতাটাইতো অনেকগুলো মিথ্যার উপর খাড়া । সব মিথ্যা মুছে দিলেই, যে কে সে, আদিম হিংস্র সত্যি সত্যি মানুষ ।

    ঈশ্বর নেই
    ঈশ্বর নেই
    ঈশ্বর নেই

    পৃষ্ঠাসমূহ

    কু ঝিক ঝিক

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    SSL Certificate
    কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর